গুরুদাসপুরে সাংবাদিকদের মানববন্ধন  

আবুল কালাম আজাদ।।

নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলায় ফসলি জমিতে অবৈধ ভাবে পুকুর খননের সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে থানার ওসি ও এসিল্যান্ডের উপস্থিতিতে সাংবাদিকদের ওপর হামলার ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে  সাংবাদিকরা মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন ।

মানববন্ধনে হামলাকারী সন্ত্রাসী নান্নু মোল্লাসহ অন্যদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার এবং গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল মতিন ও সহকারি কমিশনার (ভূমি) মেহেদী হাসান শাকিলকে ৭২ ঘন্টার মধ্যে প্রত্যাহারের দাবি করেন বক্তারা। অন্যথায় কঠোর কর্মসূচির হুশিয়ারী দেন সাংবাদিক নেতারা। বুধবার (৪ জানুয়ারী) সন্ধ্যার দিকে উপজেলার বিয়াঘাট ইউনিয়নের দুর্গাপুর স্লুইচগেট মসজিদের কাছে সাংবাদিকদের ওপর হামলা চালান অবৈধভাবে পুকুর খননকারী নান্নু মোল্লাসহ তার লোকজন। এতে গুরুতর আহত হন দৈনিক সমকালের গুরুদাসপুর প্রতিনিধি মো. নাজমুল হাসান নাহিদ (২৮)। হামলায় সাংবাদিক নাজমুলের বুকের দুইটি হাড় ভেঙ্গে গেছে। তার সাথে থাকা আরো দশজন সাংবাদিককে লাঞ্ছিত করা হয়েছে বৃহস্পতিবার দুপুর ১২ টার দিকে গুরুদাসপুর থানা মোড় শাপলা চত্বরে অনুষ্ঠিত ওই মানববন্ধন কর্মসূচিতে গুরুদাসপুর ও বড়াইগ্রামের সাংবাদিকসহ নানা শ্রেণি পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন। মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন গুরুদাসপুর প্রেস ক্লাবের সভাপতি দিল মোহাম্মদ।

মানববন্ধনে বক্তৃতাকালে যুগান্তর প্রতিনিধি দিল মোহাম্মাদ বলেন, গুরুদাসপুর উপজেলাজুড়ে  অবৈধ পুকুর খননের মহৎসব চলছে। পুকুর খননের সংবাদ সংগ্রহের জের ধরে প্রশাসনের সদস্যদের সামনে সাংবাদিকদের ওপর হামলা ন্যাক্কারজনক এবং আইনশৃংখলা লঙ্ঘনের শামিল। তিনি বলেন, থানা ও উপজেলা প্রশাসনের সামনের সড়ক দিয়ে জেলা প্রশাসকের আদেশ অমান্য করে এখনো দাপিয়ে বেড়াচ্ছে পুকুর খননের মাটিবাহী ট্রাক। এতে সড়কের স্থায়ীত্ব কমছে। বাড়ছে দূর্ঘটনা। কিন্তু প্রশাসন কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না। বুধবার সাংবাদিকদের ওপর হামলা চালানো হলেও হামলাকারী সন্ত্রাসীদের কাউকেই এখনো গ্রেপ্তার করা হয়নি।চলনবিল প্রেস ক্লাবের সভাপতি কালের কন্ঠের এমএম আলী আককাছ বলেন, বার বার সাংবাদিকরা হামলার শিকার হয়ে বিচার দাবি জানাবে আর প্রশাসন হামলাকারিদের সাথে আতাত করবে, তা হবে না। দোষীদের ৭২ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতার করতে হবে। অন্যথায় কলম বিরতিসহ কঠোর কর্মসূচি নিতে বাধ্য হবেন সাংবাদিকরা।

এসময় গুরুদাসপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ডেইলি অবজারভার ও ভোরের কাগজের মাজেম আলী অন্যান্য কর্মসূচি ঘোষণা করেন। মাজেম আলী বলেন, প্রশাসনের কর্তা-ব্যাক্তিরা জনগণের চাকুরি করছেন। তাদের উচিৎ জনগণের জানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। কিন্তু গুরুদাসপুরের প্রশাসন তা করছেন না। উপরন্ত টাকার বিনিময়ে অবৈধ পুকুর খননের মহৎসব শুরু করেছেন। এ কারণেই ওসি-এসিল্যান্ডের সামনে সাংবাদিকরা হামলার শিকার হয়েছেন। কিন্তু কোনো ব্যবস্থা নেয়নি প্রশাসন।এতে আরো বক্তৃতা করেন, গুরুদাসপুর প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি প্রথম আলোর আনিসুর রহমান, বড়াইগ্রাম প্রেসক্লাবের সভাপতি যুগান্তরের অহিদুল হক, গুরুদাসপুর প্রেস ক্লাবের সভাপতি ইত্তেফাকের রাশিদুল ইসলাম, সাজেদুর রহমান, চলনবিল প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এমদাদুল হক, জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ।

Please follow and like us:
Pin Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this:

Website Design, Developed & Hosted by ALL IT BD