ব্যাংকিং ব্যবস্থা নেই তাড়াশের ৩ ইউনিয়নে

আর্থিক নিরাপত্তাহীনতায় ৬০ হাজার মানুষ

সব্বির আহম্মেদ, তাড়াশ: সিরাজগঞ্জের তড়াশে ৩ টি ্ইউনিয়নে কোনো তফসিলি ব্যাংকের শাখা নেই। ফলে ৩ ইউনিয়নের প্রায় ৬০ হাজার মানুষ ব্যাংকিং সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। সেই সাথে তাদের আর্থিক লেনদেনও ঝুকির মধ্যে রয়েছে।
ইউনিয়ন ৩ টি হলো ১ নং তালম, ৭ নং মাধাইনগর ও ৮ নং দেশীগ্রম ইউনিয়ন। মৎস্য,কৃষি ও প্রাণীসম্পদের প্রাচুর্যে ভরা ওই ইউনিয়ন ৩ টিতে প্রায় ৬০ হাজার মনুষের বসবাস। তালম ইউনিয়নের শহীদ এম মনসুর আলী ডিগ্রী কলেজের সহকারী অথ্যাপক আবুল বাসার জানান, ওই ৩ ইউনিয়নের জমি তিন ফসলী হওয়ায় যেমন প্রচুর ফসল উৎপাদন,তেমনই সরকারী ও ব্যাক্তি মালিকানাধীন বিপুল সংখ্যক পুকুর থাকায় মাছ উৎপাদনেও শীর্ষে রয়েছে ওই তিন ইউনিয়ন। এছড়া প্রতিসপ্তাহে তিনটি ইউনিয়নে ৭ থেকে ১০ টি প্রসিদ্ধ হাটে কোটি কোটি টাকার মাছ ও খাদ্য শস্য বিক্রি হয়।
মাধাইনগর ইউনিয়নের ওয়াশীন গ্রামের কৃষক মিলন সরকার, তালমইউনিয়নের উপসিলট গ্রমের খামারি খলিল মিয়া ও দেশীগ্রাম ইউনিয়নের মাঝদখিনা গ্রামের মৎস্যচাষী ফজলুর রহমান জানান, ওই তিন ইউনিয়নের কোথাও সরকারী তফসিলি বা বানিজ্যিক ব্যাংকের শাখা নেই। ফলে ২৫ থেকে ৩০ কিলোমিটার দূরে উপজেলা সদরের ব্যাংক গুলোতে গিয়ে আমাদেও আর্থিক লেনদেন করতে হচ্ছে। ফলে আমরা ঋণ সুবিধাসহ সকল ব্যাংকিং সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছি।
এ ব্যাপারে ৭ নং মাধাইনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাবিলুর রহমান জানান, উপজেলার ৮ ইউনিয়নের অন্য ৫ টিতে বিভিন্ন ব্যংকের শাথা থাকলেও ১ নং তালম, ৭ নং মাধাইনগর ও ৮ নং দেশীগ্রম ইউনিয়নে কোনো ব্যাংকের শাখা নেই। এতে ওই তিন ইউনিয়নের প্রায় ৬০ হাজার মানুষ ব্যাংকিং নেবা বঞ্চিত এবং আর্থিক নিরাপত্তাহীনতায় আছেন।এ প্রসংঙ্গে তাড়াশ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মেজবাউল করিম বলেন, ওই তিন ইউনিয়ন উপজেলা সদর থেকে বেশ দূরে। তাই ইউনিয়ন গুলোয় ব্যংকের শাখা স্থাপন জরুরী। এ ব্যপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।

 

Please follow and like us:
Pin Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this:

Website Design, Developed & Hosted by ALL IT BD